বাংলা সাল

এই ব্লগ পেইজটি ভিজিট করার জন্য অনেক অনেক ধন্যবাদ। ভালো লাগলে আবার আসবেন। *** শিক্ষার কোন বয়স নাই, জানার কোন শেষ নাই। বিভিন্ন বাংলা সাইট পরিদর্শন করা নিত্য দিনের অভ্যাস হয়ে গেছে। আর যে সব পোষ্ট গুরুত্বপূর্ণ ও দেখতে ভালো লাগে তাহার কপি সংগ্রহ করে এইখানে প্রকাশ করি মাত্র। *** বিঃদ্র ( যে সকল ব্লগ বা ওয়েব সাইট থেকে কোন অনুমতি ছাড়া কপি করে এইখানে পোষ্ট করি বলেই ক্ষমা করবেন)

দেশের বিভিন্ন অঞ্চল ও স্থানে কৃষিপণ্য ও কৃষি উপকরণের পরিমাপ ও ওজন

কৃষি পরিমাপ (Agrometrology) কৃষিপণ্য ও কৃষি উপকরণের পরিমাপ ও ওজন, আকৃতি, আয়তন বা ভর, ভূমির ক্ষেত্রফল বা কালি ও সংখ্যা নিরূপণ একক। স্মরণাতীতকাল থেকেই কৃষক ও ব্যবসায়ীদের ব্যবহার্য বাংলাদেশের নিজস্ব পরিমাপবিদ্যা রয়েছে। এমনকি বিভিন্ন জেলারও আলাদা আলাদা কৃষি পরিমাপ প্রণালী প্রচলিত আছে যেগুলির নাম ও পরিমাপন এককে ব্যাপক ভিন্নতা রয়েছে। বাংলাদেশ সরকার এক অধ্যাদেশের মাধ্যমে ১৯৮২ সাল থেকে মেট্রিক পদ্ধতির পরিমাপ প্রচলন করেছে।

দেশের বিভিন্ন অঞ্চল ও স্থানে কৃষি পরিমাপন পদ্ধতির এককে বিভিন্নতা বা বৈচিত্র্য থাকলেও প্রমিত আন্তর্জাতিক এককের (Standard International/SI) সঙ্গে এগুলির কিছুটা সাদৃশ্য রয়েছে।

ঈদের নামাজের নিয়ম জেনে নিন

ঈদের নামাজ বছরে পড়তে হয় মাত্র দুইবার, ফলে অনেকেই এর নিয়মকানুন একটু গুলিয়ে ফেলেন। অনেকেই কখন হাত বাঁধবেন, কখন হাত না বেঁধে ছেড়ে দেবেন এটা নিয়ে খুব চিন্তিত থাকেন, এমনকি অনেকে একবার ডানপাশের লোকেরটা অনুসরণ করেন আরেকবার বামপাশের লোকেরটা অনুসরণ করেন। অথচ বিষয়টা খুবই সহজ। । মূলত বিব্রত হতে হয় অতিরিক্ত ৬টি তাকবীর নিয়ে। নীচে ঈদের নামাজের সংক্ষিপ্ত নিয়ম দেওয়া হইলো।


নামাজের নিয়মঃ

মুক্তাদীর জন্যে ঈদ-উল-আজহার নামাজের নিয়তঃ (বাংলায়) :
আমি ঈদুল আজহার দুই রাকাআত ওয়াজিব নামায ছয় তাকবিরের সহিত এই ইমামের পিছনে কিবলামূখী হয়ে আল্লাহর ওয়াস্তে আদায় করছি, ”

ভুল বিশ্বাসে অন্যকে সন্দেহ? মানসিক রোগ।



সিজোফ্রেনিয়া একটি দীর্ঘমেয়াদি মানসিক রোগ। সাধারণত ১৬ থেকে ২৫ বছর বয়সের মধ্যে সিজোফ্রেনিয়ার লক্ষণগুলো প্রকাশ পায়। এতে আক্রান্ত ব্যক্তির মধ্যে চিন্তা ও আচরণের অস্বাভাবিকতা দেখা যায়। কারও এ ধরনের রোগ হচ্ছে কি না, তা বুঝতে কিছু লক্ষণ খেয়াল করতে হবে:
* তারা বিশ্বাস করে, তাদের চিন্তা সবাই জেনে যাচ্ছে, কিংবা মনের মধ্যে অন্য কারও চিন্তা অনুপ্রবেশ করছে।
* হ্যালুসিনেশন: অনুপস্থিত ব্যক্তির কথা শোনা, সামনে কিছু নেই অথচ কিছু দেখা এবং গায়ে কিছুর স্পর্শ অনুভব করা। সে বিশ্বাস করে, এক বা একাধিক ব্যক্তি তাকে নিয়ে, তার সম্পর্কে বিভিন্ন কথা বলে।

হাঁসির গল্প- লাচ্ছি চলবে??

এক লোক এক বাসায় গিয়ে পানি চাইল।

ছোট বাচ্চাঃ পানি নেই।। লাচ্ছি চলবে??
লোকঃ অবশ্যই।। অনেক শুকরিয়া।। লোকটি ৫গ্লাস লাচ্ছি পরপর খেয়ে জিজ্ঞেস করল, তোমাদের বাসায় কেও লাচ্ছি খায় না??
বাচ্চাঃ জী খায়।। কিন্তু আজ লাচ্ছি তে টিকটিকি পড়ে গেছ কেও খায়নি!!

ভালোবাসি- অনেক বেশী ভালোবাসি তোমায়


দূরে থাকা মানেই দূরত্ব বেশি নয়,
পাশে থাকা মানেই কাছে থাকা নয় ।
দূরে থাকলে ভেবো না দূরে চলে গেছি,
কথা না হলে ভেবো না তোমায় ভুলে গেছি ।
কাঁদলে ভেবো না হাঁসতে ভুলে গেছি,
অভিমান করলে ভেবো না ভালোবাসতে ভুলে গেছি.....

ঘন ঘন গলা ব্যাথা হলে করণীয়

অনেকেই ঘন ঘন গলা ব্যথার সমস্যায় পড়েন, বিশেষ করে আবহাওয়ায় তাপমাত্রা যখন হ্রাস-বৃদ্ধি ঘটে। শীত-গরম সব ঋতুতেই গলা ব্যথা হতে পারে। লিখেছেন ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালের নাক-কান-গলা বিভাগের প্রধান ও অধ্যাপক ডা. এ এফ মহিউদ্দিন খান।
লিংক সুত্রঃ এইখান থেকে সংগৃহীত

ফ্যারিনজাইটিস
গলা ব্যথার কারণগুলোর মধ্যে প্রধান হলো ফ্যারিনজাইটিস। মূলত ভাইরাসজনিত ফ্যারিনজাইটিস বেশি হয়ে থাকে, যা থেকে পরে ইনফেকশন হতে পারে। ফ্যারিনজাইটিস অনেক সময় একই সঙ্গে টনসিলের প্রদাহও তৈরি করে।

সাধারণত এডেনো ভাইরাস, রাইনো ভাইরাস ও রেস্পাইরেটরি সিনসাইটিয়াল ভাইরাসের কারণে ফ্যারিনজাইটিস হয়। এ ছাড়া ইনফ্লুয়েঞ্জা ও প্যারাইনফ্লুয়েঞ্জা, মিসেলস এবং ভেরিসেলা ভাইরাসের সংক্রমণেও গলা ব্যথা হতে পারে।

আবার স্ট্রেপটোকক্কাস হিমোলাইটিকাস, নন হিমোলাইটিক স্ট্রেপটোকক্কাস, নিউমোকক্কাস এবং হিমোফাইলাস ইনফ্লুয়েঞ্জা ইত্যাদি ব্যাকটেরিয়ার কারণেও ফ্যারিনজাইটিস হয়।

এ ছাড়া ঠা-া ও স্যাঁতসেঁতে রুমে গাদাগাদি করে বসবাস করা, তাপমাত্রার হঠাৎ পরিবর্তন, অতিরিক্ত ধুলাবালি ও দূষণযুক্ত পরিবেশে কাজ করা, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে যাওয়া ইত্যাদি কারণেও ফ্যারিনজাইটিস হতে পারে।
এসবের বাইরে ডিপথেরিক ফ্যারিনজাইটিস, ভিনসেন্টস এনজাইনা, টিউবারকুলার ফ্যারিনজাইটিস, সিফিলিটিক ফ্যারিনজাইটিস ও ছত্রাক সংক্রমণজনিত ফ্যারিনজাইটিসও হয়।

লক্ষণ ও উপসর্গ
ফ্যারিনজাইটিস হলে সাধারণত যেসব লক্ষণ ও উপসর্গ দেখা যায় তা নির্ভর করে ব্যক্তির রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা ও ইনফেকশনের তীব্রতার ওপর-
* গলার ভেতর খুসখুস করা
* ঢোঁক গিলতে অসুবিধাবোধ করা
* গলার স্বর বসে যাওয়া
* গলায় ব্যথা অনুভূত হওয়া ইত্যাদি।
পাশাপাশি যদি নাকে ও সাইনাসে ইনফেকশন থাকে, তাহলে নিচের লক্ষণগুলোও থাকতে পারে-
* নাক দিয়ে পানি পড়া
* হালকা জ্বর ও মাথা ব্যথা
* সর্দি, হাঁচি এবং শরীরে ব্যথা হওয়া।

ছন্দ- কবিতা

কুসংস্কারে আমরা আজও চোখ  থাকিতে কানা

✔ ব্যাঙ ডাকলে বৃষ্টি আসে, মোরগ ডাকলে ভোর,,
✔কুকুর ডাকলে লেজ গুছিয়ে ছিটকে পালায় চোর।
✔পেঁচা ডাকলে অশুভ হয়, শকুন ডাকলে মরণ,,
✔হঠাৎ কোন বিপদ নাকি, কাকে ডাকার কারণ।
✔পাখি ডাকলে কুটুম আসে মিষ্টি হাতে নিয়ে ,,
✔বৃষ্টির মাঝে রোদ হাসিলে শেয়াল মামার বিয়ে।

এক বাদশার গল্প


এক বাদশার একটি বাগান ছিল। বাগানটি ছিল অনেক বড় এবং বিভিন্ন স্তর বিশিষ্ট। বাদশাহ একজন লোককে ডাকলেন। তার হাতে একটি ঝুড়ি দিয়ে বললেন,আমার এই বাগানে যাও এবং ঝুড়ি বোঝাই করে নানা রকম ফলমুল নিয়ে আস। তুমি যদি ঝুঁড়ি ভরে ফল আনতে পার আমি তোমাকে পুরস্কৃত করব। কিন্তু শর্ত হল, বাগানের যে অংশ তুমি পার হবে সেখানে তুমি আর যেতে পারবে না। লোকটি মনে করলো এটা তো কোন কঠিন কাজ নয় । সে এক দরজা দিয়ে বাগানে প্রবেশ করল।দেখল, গাছে গাছে ফল পেকে আছে। নানা জাতের সুন্দর সুন্দর ফল। কিন্তু এগুলো তার পছন্দ হল না। সে বাগানের সামনের অংশে গেল। এখানকার ফলগুলো তার কিছুটা পছন্দ হল। কিন্তু সে ভাবল আচ্ছা থাক সামনের অংশে গিয়ে দেখি সেখানে হয়ত আরো উন্নত ফল পাব, সেখান থেকেই ফল নিয়ে ঝুঁড়ি ভরব। সে সামনে এসে পরের অংশে এসে অনেক উন্নত মানের ফল পেল। এখানে এসে তার মনে হল এখান থেকে কিছু ফল ছিড়ে নেই। কিন্তু পরক্ষণে ভাবতে লাগলো যে সবচেয়ে ভাল ফলই ঝুড়িতে নিবে। তাই সে সামনে এগিয়ে বাগানের সর্বশেষ অংশে প্রবেশ করল। সে এখানে এসে দেখল ফলের কোন চিহ্ন ই নেই। অতএব

আমশায় রোগ ও রোগের কারন কি

আমাশয় বা ডিসেন্ট্রি একটি অতি পরিচিত রোগ। বিভিন্ন কারণে এই রোগ হয়। আমাশয় বা ডিসেন্ট্রি বলতে সাধারন ভাবে যা বুঝায়– অ্যামিবা (এক কোষী পরজিবি বা পেরাসাইট) এবং সিগেলা-shigella এক ধরনের বেক্টরিয়ার ধারা মানবদেহের পরিপাকতন্ত্রে (গ্যাস্ট্রোইনটেস্টাইনাল) বাসা বেঁধে যে ঘা বা ইনফেকশনে পেটে কামড়ানো সহ মলের সাথে পিচ্ছিল আম অথবা শ্লেষ্মা যুক্ত রক্ত যাওয়া কে আমাশয় বা ডিসেন্ট্রি বলা হয়।


আমাশয় বা ডিসেন্ট্রি একটি অতি পরিচিত রোগ। বিভিন্ন কারণে এই রোগ হয়। এ বিষয়ে কথা বলেছেন বাংলাদেশে সোসাইটি অব মেডিসিনের মহাসচিব এবং ঢাকা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের অধ্যাপক ডা মো. ফয়জুল ইসলাম চৌধুরি।

প্রশ্ন : ডিসেন্ট্রি বা আমাশয় অত্যন্ত প্রচলিত একটি রোগ। এ রোগের আক্রান্ত হয়নি এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া মুশকিল। তবে কারো কারো বেলায় দীর্ঘ মেয়াদি হয়। কেউ কেউ মনে করে তার সারাজীবন ধরেই আমাশয় হচ্ছে। 

মাগো ''মা''

মাগো মা'', তুমি আজ বড়ই রোগা হয়ে গেছ মা'', বয়স অনেক হয়েছে তোমার, তুমি নিজেও যান না ''মা'', আজ তুমি বৃদ্ধ হয়ে যাচ্ছ ''মা',  ছোট বেলার কথা মনে পড়ে ''মা'', তোমাকে কত না কষ্ট দিয়েছি  ''মা'', তাহার কোন পতিবাদ করনাই ''মা'', আমাকে ক্ষমা কর ''মা'', আজ সব বুঝতেছি ''মা'', কারন আমি যে, বাবা হয়েছি ''মা'', আমাকে ক্ষমা কর ''মা'', আর আমার জন্য দোয়া কর ''মা'',

জেনে নিন- আন্তর্জাতিক দিবসসমূহ

আন্তর্জাতিক দিবসসমূহ জেনে নিন। 

Image result for আন্তর্জাতিক দিবসসমূহ
  • বিশ্ব কুষ্ঠ দিবস- জানুয়ারি মাসের শেষ রবিবার
  • বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস- ২ জানুয়ারি
  • বিশ্ব শিশু ক্যান্সার দিবস- ২৫ জানুয়ারি
  • আন্তর্জাতিক শুল্ক দিবস- ২৬ জানুয়ারি
  • বিশ্ব হিজাব দিবস – ১ ফেব্রুয়ারি
  • বিশ্ব জলাভূমি দিবস- ২ ফেব্রুয়ারী
  • বিশ্ব ক্যান্সার দিবস- ৪ ফেব্রুয়ারী
  • বিশ্ব ডারউইন দিবস – ১২ ফেব্রুয়ারি
  • আন্তর্জাতিক রেডিও দিবস – ১৩ ফেব্রুয়ারি
  • বিশ্ব ভালোবাসা দিবস- ১৪ ফেব্রুয়ারী
  • বিশ্ব সামাজিক ন্যায় বিচার দিবস- ২০ ফেব্রুয়ারী
  • আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস- ২১ ফেব্রুয়ারী
  • বিশ্ব স্কাউট দিবস- ২২ ফেব্রুয়ারী
  • কমনওয়েলথ দিবস- মার্চ মাসের দ্বিতীয় সোমবার
  • বিশ্ব কিডনি দিবস- মার্চ মাসের দ্বিতীয় বৃহস্পতিবার
  • বিশ্ব ঘুম দিবস – মার্চের দ্বিতীয় পূর্ণ সপ্তাহের শুক্রবার
  • বিশ্ব সিভিল ডিফেন্স দিবস – ১ মার্চ
  • বিশ্ব জন্ম-ত্রুটি দিবস – ৩ মার্চ
  • বিশ্ব বন্যপ্রাণী দিবস – ৩ মার্চ
  • আন্তর্জাতিক কর্ণসেবা দিবস – ৩ মার্চ
  • আন্তর্জাতিক নারী দিবস- ৮ মার্চ

পড়েন আর হাসেন



বেশিরভাগ মানুষ রাতে করে, 

কেউ কেউ আবার দিনেও করে। 

কেউ টানা ত্রিশ মিনিট করে, 
কেউ কেউ আবার এক ঘন্টা ও করে। 
কেউ সারারাত করে, 
এই ভাবেই তো মানুষ
/

ছবির বিভিন্ন মাপ সম্পর্কে জেনে নিন

অনেকে ফটোশপে ছবির কাজ করতে গিয়ে ছবির মাপ/সাইজ নিয়ে চিন্তায় পড়ে জান। আর চিন্তা না করে ছবির বিভিন্ন মাপ সম্পর্কে জেনে নিন। তাহলে চলুন কথা না বাড়িয়ে মাপ গুলো দেখি।

Stamp Photo Size = (.8″×1″)
Passport Photo Size = (1.52″×1.9″)
3R Photo Size = (3.5″×5″)
4R Photo Size = (4″×6″)
5R Photo Size = (5″×7″)
6R Photo Size = (6″×8″)
8R Photo Size = (8″×10″)

বিভিন্ন দেশের পাসপোর্ট সাইজের ছবির মাপ সমূহ

পাসপোর্টের ছবির সাইজ কি হবে? বিভিন্ন দেশের পাসপোর্ট সাইজের ছবির মাপ সমূহ নীচে দেওয়া হল। 

Name of CountryPhoto SizeSpecialization
The United States2” x 2”less than six months old
Canada5cm x 7cmhigh quality photo paper are acceptable
Mexico2” x 2”white  background
Bangladesh50mm x 40 mm
United Kingdom4.5cm x 3.5cm
Germany4.5cm x 3.5cm
France4.5cm x 3.5cm
Italy4.5cm x 3.5cm
Spain4cm x 3cm
Russia4cm x 3.5cm
Turkey4.5cm x 3.5cm
Netherlands4.5cm x 3.5cm
Australia4.5cm x 3.5cm
China4.8cm x 4.3cm
Japan4.5cm x 3.5cm
India3.5cm x 3.5cm
Singapore3.5cm x 3.5cm
Korea3.5cm x 3.5cm
Brazil7cm x 5cm
সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত পাসপোট সাইজ ছবি   (2 x 2") and (3.5 x 4.5 cm).

“শ্রী”

“শ্রী” শব্দটি সংস্কৃত ভাষার সবচেয়ে ছোট শ্লোক । “শ্রী” শব্দে তিনটি অক্ষরের সন্নিবেশ হয়েছে । সুতরাং এটি একটি অক্ষর নয়, শব্দ । শ্রী অর্থে - ঐশ্বর্য, সেীভাগ্য, সৌন্দর্য, লাবণ্য, শোভা প্রভূতি । নামের পুর্বে শ্রী লেখার অর্থ আপনি উপরোক্ত বিশেষনে ভুষিত । অন্যার্থে আপনি উপরোক্ত অর্থে শ্রীযুক্ত হোন বলে আর্শীবাদ। শ্রদ্ধা ভক্তি প্রকাশের ক্ষেত্রে গ্রন্থ বা ব্যক্তির নামের পুর্বে অতিরিক্ত শ্রী যুক্ত করে প্রকাশ করা হয় । সনাতন ধর্মে আমরা আশা করি -সকলেই সৌভাগ্যবান, শোভা, সম্পদশালী হোন । এজন্যই আমাদের প্র্রার্থনা মন্ত্রে আছে- সর্বে ভবস্ত্ত সুখিনঃ, সর্বে সন্ত্ত নিরাময়াঃ । সর্বে ভদ্রাণি পশ্যন্ত্ত, মা কশ্চিদ দুঃখভাগ্ ভবেৎ ।। - সকলেই সুখী হোক, সকলেই নিরাময় থাকুক । সকলে শুভ দেখুক, কেউ যেন দুঃখ ভোগ না করে । শ্রী লেখা

হাত-পা অবশ লাগে কেন?

প্রায় সময়ই কিছু রোগী পেয়ে থাকি যারা হাত অথবা পায়ের ঝিম ধরা বা অবশ অনুভূত হওয়া এই ধরনের উপসর্গ নিয়ে আমাদের কাছে আসেন। এই ধরনের সমস্যা নিয়ে যেসব রোগী আসেন তাদের মাঝে কেউ কেউ বলেন রাতে একদিকে কাত হয়ে শুলে খানিকক্ষণ পর ওই পাশের হাত ও পা অবশ অনুভূত হয়। তারপর শোয়া থেকে উঠে কিছুক্ষণ হাঁটহাঁটি করলে স্বাভাবিক হয়ে যায়। এসব কারণে রাতে ঘুমাতে অসুবিধা হয়, কারো কারো ক্ষেত্রে হাতে কোনো জিনিস কিছু সময় ধরে রাখলে হাত ঝিম বা অবশ মনে হয়। কিছুক্ষণ পর আর ধরে রাখতে পারেন না। এমনকি মোবাইল ফোনে কথা বলার সময় বেশিক্ষণ মোবাইলটি কানে ধরে রাখতে পারেন না। 


আসুন আমরা জেনে নিই কী কী কারণে এই ধরনের উপসর্গ দেখা দিতে পারে।

জেনে নিন মোটা হওয়ার উপায়।

 কিভাবে আপনি খুব সহজে মোটা হতে পারেন। 


ফিনফিনে পাতলা শরীর কারোই কাম্য নয়। দেখতেও মানানসই নয়। বেশী মোটা কিংবা শুকনা কোনোটাই ভাল নয়; মাঝামাঝি থাকাটাই মঙ্গলময়। স্বাস্থ্য প্রকৃতিগত ভাবে পাওয়া। চাইলেই যদি সব পাওয়া যেত তাহলে ইচ্ছেমত সবাই শরীরটাকে বদলে দিত, তবে হ্যা চর্চার মাধ্যমে সব অসম্ভবকে সম্ভব করা যায়। নিয়মিত অনুশীলন, চেষ্টা ধৈর্য আপনার চাওয়াকে পাওয়াতে পরিণত করবে। যারা খুব শুকনা তারা মোটা হওয়ার উপায়গুলো জেনে নিন।

✒ যদি নিয়মিত পুষ্টিকর খাবার খান এবং রাতের ঘুম ঠিক রাখেন তাহলে আপনি তাড়াতাড়ি আপনার স্বাস্থ্য মোটা করতে পারবেন। না ঘুমাতে পারলে আপনার শরীর ক্যালরী ধরে রাখতে পারে না। রাতে তাড়াতাড়ি খাওয়া শেষ করুন এবং তাড়াতাড়ি ঘুমিয়ে পড়ুন।

✒ একটা নিদিষ্ট সময় ধরে খাবেন। সকালে ঘুম থেকে উঠে এক ঘন্টার মধ্যে সকালের নাস্তা শেষ করুন। সকালে প্রচুর পরিমাণে খেয়ে নিতে পারেন। হ্যাম বার্গার, ভাজা খাবার, চিকেন ব্রেস্ট খেলেও ক্ষতি নেই।

✒ সফ্ট ড্রিংকস্ এবং ফ্যাটি খাবার খেলে স্বাস্থ্য মোটা হয়। এতে হাই-ইন্সুলিন থাকে। ইন্সুলিন হরমোন তৈরি করে। যার সাহায্যে শরীরে কার্বোহাইড্রেট, প্রোটিন এবং ফ্যাট জমে। যখন ফ্যাটি ফুডস্ খাবেন তখন পানি পান করুন; সফ্ট ড্রিংকস্ নয়। এমনকি ডায়েট সফ্ট ড্রিংকস্ও নয়। এটা খেলে আপনি ফ্যাটি ফুড খেতে পারবেন না।

মাথা ঘোরার কারন ও সমাধান



কর্মক্ষেত্রে দারুন চাপ, দীর্ঘক্ষণ কাজের মধ্যে থাকার কারনে, কম বেশি সবাই মাথা ঘোরার অভিজ্ঞতা অর্জন করে থাকে। কিন্তু মাথা ঘোরা কোনও মজার বিষয় না। যতক্ষণ মাথা ঘোরে, ততক্ষন নিজেকে ভয়ংকর অসুস্থ বলে মনে হয়।মাথা ঘুরানোর অনেক কারন থাকতে পারে। সেসকল কারন ও তার সমাধান নিয়ে আমাদের আজকের আলোচনা। মাথা ঘোরা যদি হঠাৎ করে শুরু হয় আর অল্প সময়ের জন্য থাকে, তো এর কারন হলঃ 
১· অতিরিক্ত পরিশ্রম 
২· অন্তঃকর্ণের রক্তবাহী নালীর অস্বাভাবিকতা 
৩· অন্তঃকর্ণের প্রদাহ যদি অনেক উঁচুতে উঠে নিচের দিকে তাকালে অথবা চলন্ত ট্রেন দেখলে বা গাড়ি থেকে প্লাটফর্মের দিকে তাকালে মাথা ঘোরায়, তাহলে এর কারন হলঃ 
১· অস্বাভাবিক দৃষ্টিগত

রোজা থাকা অবস্থায় স্বপ্ন দোষ হলে কি রোজা ভেঙ্গে যাবে ?

রোজা থাকা অবস্থায় স্বপ্ন দোষ হলে কি রোজা ভেঙ্গে যাবে ?
স্বপ্নদোষের কারণে বীর্যপাত হলে সিয়াম ভঙ্গ হবে না। কারণ এটা অনিচ্ছাকৃত ভাবে হয়ে গেছে। যা কিছু অনিচ্ছাকৃতভাবে হয়ে যায় আল্লাহ তা ক্ষমা করে দেন।
এমনিভাবে নিদ্রা মগ্ন ব্যক্তি থেকে আত্মা (কল্বব ) উঠিয়ে রাখা হয়। কাজেই নিদ্রাকালে যা কিছু ঘটে তার জন্য কাউকে দায়ী করা যায় না। এটা আমাদের প্রতি আল্লাহ রাববুল আলামিনের একটি রহমত। কেউ কোন বিষয়

কল্পনা করার ফলে যদি বীর্যপাত হয়ে যায় এতে সিয়াম ভঙ্গ হবে না।
রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন :—

ফ্রীতে নেট থেকে আয় করুন- বাংলাদেশী সাইট

আমি অনেক দিন ধরে ফ্রীতে বাংলাদেশী shareyt সাইট থেকে টাকা আয় করে আসতেছি। shareyt সাইট থেকে আমি মাসে ২ বার করে বিকাশের মাধ্যমে নিজের পার্সোনাল নাম্বারে ক্যাশ ইন করে থাকি। ইচ্ছা করলে আপনি করতে পারেন। এই সাইট থেকে আয় করতে তেমন কোন অবিজ্ঞতা লাগে না। লাগে শুধু নেট সংযুক্ত একটি কম্পিউটার। তাহলে আপনি আয় করতে পারবে নেট থেকে আয়। এই আয়ের টাকা দিয়ে হয়ত আপনি বাড়ি গাড়ি কিছু করতে পারবেন না। কিন্তু আয় যে ১০০% নিচ্ছিত ভাবে করতে পারবেন এইটা আমি বলতে পারি। বিশ্বাস করুন বা নাই করুন এই সাইট থেকে আমি প্রতি মাসে ২ বার করে নিজের পার্সোনাল নাম্বারে টাকা ক্যাশ ইন করি। http://shareyt.com

বিশ্বের সেরা দশ নিষিদ্ধ সিনেমা


১০) ক্লক ওয়ার্ক অরেঞ্জ (১৯৭১)
স্ট্যানলি কুবরিকের এই সিনেমা গ্রেট ব্রিটেনে
২৭ বছর ধরে নিষিদ্ধ ছিল। অত্যধিক মারামারি, পাশবিক
ধর্ষণের দৃশ্য থাকায় এই সিনেমাকে কিছুতেই
গ্রেট ব্রিটেনে দেখানোর অনুমতি দেওয়া হয়নি।
মার্কিন মুলুকে অবশ্য বেশ প্রশংসা কোড়ায় এই
সিনেমা।

৯) দ্য বার্থ অফ এ নেশন (১৯১৫)
সাইলেন্ট মুভি। কিন্তু কৃষ্ণাঙ্গ মানুষদের আক্রমণে
করা হওয়ায় মুক্তির পর নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়। ছবির
পরিচালকও পরে স্বীকার করে নেন তার ভুল
হয়েছিল।

সেনানিবাসে সৈনিক পদে (২০১৭ ব্যাচের জন্য) লোক ভর্তি কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হবে আগামী ১৭ জুলাই ২০১৬ হতে ৩১ ডিসেম্বর ২০১৬ তারিখ পর্যন্ত

আগামী ১৭ জুলাই ২০১৬ হতে ৩১ ডিসেম্বর ২০১৬ তারিখ পর্যন্ত নির্ধারিত সেনানিবাসে সৈনিক পদে (২০১৭ ব্যাচের জন্য) লোক ভর্তি কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হবে। সেনাবাহিনীতে যোগদানে আগ্রহি পুরুষ ও মহিলা প্রার্থিদের আবেদনের জন্য বিস্তারিত তথ্যাবলী নিন্মরুপঃ





বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে যোগ দিতে বিস্তারিত দেখুন ও আবেদন করুন

ভালোবাসা এর এসএমএস


ভালোবাসা এর এসএমএস নেট থেকে সংগ্রহ করে এইখানে পোষ্ট করলাম। 



সত্যিকারে ভালবাসা যা, সে অতি অপমান’’আঘাত করলে..হাজার ব্যাথা দিলেওতাকে ভোলা যায় না..!! 

মানুষ ভালবাসার পাগল..একটুখানি ভালবাসার জন্য মানুষ অনেক কিছু করতে পারে.. 

যে মানুষ যত বেশি গম্ভীর..সে মানুষ ততবেশি রাগী..তবে তার মধ্যে ভালোবাসাও থাকে বেশি..

ছেলে মানুষের জীবন- গল্প

একটি কাল্পনি গল্প। ছেলেদের জীবনের আলোকে এই গল্পটি লেখা হয়েছে। কে এই গল্পটি লেখেছে তাহা আমি বলতে পারবোনা। ফেসবুক থেকে সংগ্রহ করে এইখানে পোস্ট করলাম মাত্র। গল্পটি পড়ে আমার ভাল লেগেছে তাই আপনাদের সাথে শেয়ার করলাম। 
গল্প শুরু, ছেলে মানুষের জীবন
----------------------------

গাধাকে সৃষ্টি করার পরে 


সৃষ্টিকর্তা গাধা বললেন : "তুই আজীবন কঠোর পরিশ্রম করবি, অন্যের বোঝা বয়ে বেড়াবি। তোর মাথায় কোনো বুদ্ধিও থাকবেনা। তোকে আয়ু দিলাম ৫০ বছর। 
গাধা : সে কি !! এত কষ্ট করে আমি এত দীর্ঘদিন বাঁচতে চাইনা। প্লিজ, আমার আয়ু কমিয়ে ২০ বছর করে দিন। 
সৃষ্টিকর্তা : যাহ, তাই

জেনে নিন কাশির সঙ্গে রক্ত যাওয়ার কিছু কারন


Image result for কাশি

.কাশির সঙ্গে রক্ত বেরোলে তার কারণ খুঁজে বের করতে হবে, সেই রক্তের পরিমাণ কম-বেশি যা-ই হোক। জেনে নিন, কী কী কারণে এমনটা হতে পারে—

* ধূমপানের কারণে দীর্ঘমেয়াদি কাশি, শুকনো কাশির আকস্মিক পরিবর্তন, কাশির দমক ক্রমাগত বৃদ্ধি, শিল্পকারখানায় কাজকর্ম এবং তামাক সেবনের অভ্যাস ইত্যাদি কারণে কাশির সঙ্গে রক্ত যেতে পারে। এটা ফুসফুসের ক্যানসারের উপসর্গও হতে পারে।
* কাশি ও কাশির সঙ্গে রক্ত যাওয়ার পাশাপাশি অল্প অল্প জ্বর, সন্ধ্যাবেলায় জ্বর, খাবারে অরুচি, শরীরের ওজন হ্রাস, ঘনবসতিপূর্ণ এলাকায় বসবাস, রাতে শরীরে ঘাম ইত্যাদি যক্ষ্মা রোগের লক্ষণ। ফুসফুসের পুরোনো প্রদাহ, যক্ষ্মা ইত্যাদি থাকলে পরবর্তী সময়ে ফুসফুসে ছিদ্র হতে পারে। ফলে সকালের দিকে রক্তমাখা কাশি বেরোতে পারে। ফুসফুসে ফোঁড়া হলেও কাঁপুনি দিয়ে জ্বর এবং রক্তমাখা কাশি হতে পারে।
* হৃদ্রোগের কারণেও কাশির সঙ্গে রক্ত যেতে পারে।

প্রাইজবন্ড ড্র এর ফলাফল



প্রাইজবন্ডের ৮৩তম ড্র অনুষ্ঠিত হয়েছে

বাংলাদেশ প্রাইজবন্ডের ১০০ টাকা মূল্যের ৮৩তম ড্র অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে ৬ লাখ টাকা মূল্যের প্রথম পুরস্কার জিতেছে ০৯৫০৫৩৪।
অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে এ ড্র অনুষ্ঠিত হয়। ঢাকা বিভাগের অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (সার্বিক) মো. আনিছুর রহমান এতে সভাপতিত্ব করেন।

৩ লাখ ২৫ হাজার টাকা মূল্যের দ্বিতীয় পুরস্কার জিতেছে ০৪৩৪১৯৭। তৃতীয় পুরস্কার দুটি। প্রতিটি ১ লাখ টাকা মূল্যের পুরস্কার জয়ী প্রাইজবন্ড দুটি হচ্ছে- ০২৬১৬৬১ ও ০৩৮১৮৭৫। আর ৫০ হাজার টাকা মূল্যের চতুর্থ পুরস্কার দুটির বিজয়ী নাম্বার হচ্ছে- ০২২৩০০২ ও ০৪৫১৬৬৯।

বর্তমানে প্রচলিত ৪৬ টি সিরিজের প্রতিটির ক্ষেত্রে এই নাম্বারধারীরা আলোচিত পুরস্কারগুলো পাবেন।

একক সাধারণ পদ্ধতিতে (প্রতিটি সিরিজের জন্য একই নম্বর) এই ‘ড্র পরিচালিত হয়। ১০০ টাকা মূল্যমানের ৪৬টি সিরিজ এ ড্র এর আওতাভুক্ত। সিরিজগুলো হচ্ছে-

আল্লাহ্ যা করেন ভাল করেন- গল্প


এক রাজার এক চাকর ছিল। চাকরটা সবসময় যেকোন অবস্থাতেই রাজাকে বলত, “রাজা মশাই, কখনো মন খারাপ করবেন না। কেননা আল্লাহ যা করেন তার সব কিছুই নিখুঁত ও সঠিক। 

”একবার তারা শিকারে যেয়ে নিজেরাই এক হিংস্র প্রাণীর আক্রমণের শিকার হলো। রাজার চাকর সেই প্রাণীকে মারতে পারলেও, ততক্ষণে রাজা তার একটা আঙুল খুইয়ে বসেছেন। রাগে- যন্ত্রণায়-ক্ষোভে রাজা ক্ষিপ্ত হয়ে বলে ওঠে, “আল্লাহ যদি ভালোই হবে তাহলে আজকে শিকারে এসে আমার আঙুল হারাতে হতো না। 
”চাকর বলল, “এতকিছুর পরও আমি শুধু আপনাকে এটাই বলব, আল্লাহ সব সময়ই ভালো ও সঠিক কাজই করেন; কোনো ভুল করেন না। চাকরের এই কথায় আরও বিরক্ত হয়ে

ভালোবাসার জলে হাবুডুবু খেল ছেলে- ছি ছি ছি

গ্রাম থেকে বাপ নিজের ছেলের সাথে দেখাকরতে শহরে এল। গিয়ে দেখলো, তারছেলের সাথেএকটা খুব সুন্দরী মেয়েও থাকে। রাতে তিন জন যখন এক সাথে ডিনার টেবিলে বসলো, বাবা জিজ্ঞেস করলো--

"তোর সাথে এই মেয়েটি কে রে..?"

ছেলে : বাবা, সে আমার রুম পার্টনার আর আমার সাথেই থাকে। তুমি এটা নিয়ে কি কি ভাবছ, সেটা আমি জানি। কিন্তু আমাদের দুজনের মধ্যে সে রকম কোন সম্পর্ক নেই। আমাদের দুজনেরই আলাদা আলাদা কামড়া আর আমরা দুজনে আলাদা আলাদা বেডে ঘুমাই। আমরা দু'জন শুধু খুব ভাল বন্ধু। 
বাপ : ঠিক আছে বেটা। পরের দিন বাপ নিজের গ্রামে চলে গেল। 

এক সপ্তাহ পর মেয়েটি ছেলেটিকে বলছে-- "শুনো, গত রবিবার তোমার বাবা যে প্লেটে ডিনার করেছিলেন, ওই প্লেটটা খুঁজে পাচ্ছিনা। আমার সন্দেহ তোমার বাবাই এটা চুরি করে নিয়ে গেছেন। ছেলেটি রেগে গিয়ে বলল--"শাট আপ...তুমি এসব কি বলছো..?" 
মেয়েটি বলল--"তুমি একবার তোমার বাবাকে জিজ্ঞেস করে দেখোনা, জিজ্ঞেস করতে কি আপত্তি..?" ছেলেটি বলল--"OK,

করিম চাচার ঘরে চুরি

গ্রামের করিম চাচা ইংলিশ শিখেছে অনেক দিন হল তাহা ব্যাবহার করতে পারে না কারো সাথে যদিও করে কেউ বুঝে না। বুঝবে কেমনে এই ইংলিশ যে সবাই পারেনা। করিম চাচার ঘরে চুরি হয়েছে তাই থানা ফোন দিয়ে বলতেছে---- 


করিম চাচা : হ্যালো, এটা কি থানা?
পুলিশ : হ্যা!
করিম চাচা : আমার বাড়িতে কালকে চুরি হইছে।
পুলিশ : how ? (কিভাবে)(করিম চাচা ভাব দেখিয়ে ইংরেজীতে বলল)
করিম চাচা : কাটিং দা বাঁশের বেড়া ! ঢুকিং দা চোর ! লইং দা জিনিসপত্র ! গোয়িং দা ডোর !
পুলিশ :

মেয়ে তুমি বড় অসহায়!

মেয়ে তুমি সুন্দরী হলে..!


স্বামী সর্বদা সন্দেহের চোখে দেখবে তোমায়, কুৎসিত হলে অন্য মেয়ের সাথে মাতবে পরকিয়ায়,, সত্যি মেয়ে, তুমি বড় অসহায়!

মেয়ে, তুমি উচচশিক্ষিত হলে স্বামী সর্বদা থাকে হিন্যমন্যতায়, অশিক্ষিত হলে সংসার রাখবে অবহেলায়,, সত্যি মেয়ে, তুমি বড় অসহায়!

মেয়ে, তুমি গরিব বাবার সন্তান হলে স্বামী করবে সর্বদা তাচিছল্য কথায় কথায় দেবে খোঁটা, ধনীর দুলালী হলে স্বামীর

নিচের লিঙ্ক গুলি থেক পছন্দ মত খুজে নিয়ে পড়ুন

অন্যান্য ভালো থাকুন গল্প ইসলাম তাজা খবর কম্পিউটার শিক্ষা স্বাস্থ্য হাঁসির গল্প জেনে রাখা ভালো অন লাইনে টাকা আয় করুন। জব(job) ফল এর পুষ্টিগুণ জীবনের পাতা থেকে নেওয়া কবিতা নিজের হাতে তৈয়ার করুন ব্লগ সাইট ১৮+ ডাউনলোড করুন কথা জমি জমার হিসাব (ভূমির পরিমাণ পদ্ধতি) এফিলিয়েট এর মাধ্যমে আয় করুন গেম(Games) নবীদের জীবনী পড়ালেখা ডিজাইন fast2earn এসএমএস তথ্য প্রযুক্তি শিক্ষনিয় পোষ্ট Facebook কৌতুক গান বিয়ে সাধারণ জ্ঞান Alertpay বা Payza Bangla Font অডিও ভিডিও এডিটিং শিখুন ঈদের নামাজের নিয়ম ঋতু ওয়েব কিছু প্রয়োজনীয় ওয়েব সাইট সমূহ ক্যাপচা টাইপ গুগল প্লাস ছেলে মেয়েদের সুন্দর নাম পাখির ছবি প্রাইজবন্ড ড্র এর ফলাফল ফেব্রুয়ারির ২৯ লিপ ইয়ার কেন হয়? বাংলা SMS বাংলাদেশের প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয় এর তালিকা বাছাই করা ছবি/মভিই ভুমিকম্প মা স্বর্ণের ওজন পরিমাপ

এই ব্লগ সাইটের পোষ্ট গুলি ফেসবুকে নিয়মিত আপডেট পেতে লাইক দিন

Hot sex Downloads now! Earn @ Wap4dollar.Com

এই সাইটটিতে ছোটদের যাওয়া নিষেধ